কামরুল নাজিম এর কবিতা | মিহিন্দা




গুণের ভুলে 


এমন বিস্তীর্ণ অবসরগুলোতে যে সমস্ত বাতাস ছুটে আসে হৃদয়ের অতল থেকে- ধীরে, ঘূর্ণনে- 
তোমার চারপাশে আবর্তিত হয়। তোমাকে দেখতে ইচ্ছে করে
 
সুক্ষ্মকোণে, মেপে মেপে খুব নিবিড়ে। দৈবাৎ দেখিও। 
যে সমস্ত দিন গত হয়েছে অংক খাতায়; ত্রিমাত্রিক সূত্রে ফুটে উঠেছে তোমার মুখায়ব, নথের পাশে বৃত্ত- তুমুল উৎসব। মা এলে গুণফলে কাটাকাটি হতো। 
যোগের ভুল! 
  
 
কবিতার বইয়ে কেউ যদি অংক কষে বসে- 
সেদিন আকাশে মেঘেদের গোল্লাছুট; দুপুর কিংবা সন্ধ্যে- ভাবগত তারতম্য নেই (ব্যাকরণ মুছে দিলে)। যদিও- 
প্রবন্ধটির নাম- 
      একটি বর্ষণমুখর সন্ধ্যা/
       একটি শীতের সকাল; 
 
ক্লান্তি নেয় কোন। বরং-
  
এঁকেবেঁকে ছুটে চলা একা নদী যেন! দু'কূল ঘেঁষে শত সবুজ প্রেম নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে- 
পাখিদের অভিবাদন জানাবার আয়োজনে৷ 
  
 
পিথাগোরাসের শরীর বেয়ে তুমি মিশে গিয়েছো সমুদ্রে।  অথচ, তোমাকে নদী ভেবেই কেটে গেল আমার একটি হাইস্কুল জীবন। 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন