সৌরভ বর্ধন এর কবিতা | মিহিন্দা




রঙিন টুপি



রঙিন টুপির কথা আমি প্রকাশ্যে বলি না,
কালো চশমায় ধরা পড়ে যায় সব।
বহুকোশী টুপির চোখে রোদ প'ড়ে এলে
লেন্স ঠিক করে হাত। তারপর শান্তি এবং আঁধার নামে,
লাইভ দেখতে ছুটে আসে মুখ।

টুপির সঙ্গে মাথার যে গোল -- তাকে বনখণ্ড বলে!
খুব প্রাচীন ফোম্ ফুলেফেঁপে ওঠে গালে। অন্যদিকে,
ক্লাউড-ক্যাপ ব'লে যদি কিছু থাকে, তবে তা ঠিক
দাড়ির মতোই সভ্য, চশমার শীতলতা দিব্যি সে ভুলে থাকে।

পোড়া ঠোঁটের শলিল দেখে টুপির বর্ণ মন্ত্র...
টুপির জন্য আকাশ আলো, টুপির জন্য চোখ ক্ষয়ে যায়।
এই শান্ত টুপির পাঠ থেকে চণ্ডীসেলাই ---
সব ক্যামেরায় আমি জুতো রাখি। আমার দিকে তাকাও,
তবু টুপিকে হিংসে কোরো না। টুপির নামে ক্লান্ত তারা
চেয়ারশালার রক্ষী, টুপির নামে রঙের প্যালেট
                                  গিঁটের ফাঁসে যক্ষী!

দৃঢ় চকচকে গীতের ভেতর আমাদের ঠাণ্ডাচোখ
লাল মেলে থাকে ---- যতটা মুঠো তুলে ধরলে কোশ
ফোনের চেয়ে অধিক হয়, প্রিয় টুপি বিশ্রাম নেয় ততটাই।
এই দাঁড়িয়ে থাকার লজ্জায় মাথা কাটা তার,
তবুও অনন্তখাদ দাঁড়াতে পারে সে।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন