আকাশ অঙ্কুর এর কবিতা | মিহিন্দা




আমি যাযাবর


আমার নেই কোন দল, নেই কোন ঠিকানা
আমি এক যাযাবর।
মৃত্যু আমার রুদ্ধদ্বার,
আমি সেই যাযাবর।
মিছিল মিছিল-
গুলি খাওয়া ।
দাবি আদায়ে,
লুটেরা ঈশ্বরের গলা টিপে ধরা!
বোমা মেরে উড়িইয়ে দেওয়া ইন্দ্রলোক,
আমি তোমার বন্ধু।
দল হারা, জাতহারা;
তোমাদের সহ যোদ্ধা,
এক সর্বহারা যাযাবর।



স্মৃতির উলঙ্গ মাথা



স্মৃতির উলঙ্গ মাথায়,
সামান্য চুল তা নিয়েই বেঁচে থাকা।
রেস্টুরেন্ট-কফি হাউজে কাটানো এক চা চুমুক সময়,

মনের ছায়াছবি দেখতে দেখতে,
তর্ক যুদ্ধে প্রেম শিখা।
মুগ্ধ প্রেমে হৃদয়ের দরজা খুলে- ভালোবাসার অনুপ্রবেশ,
অতঃপর হৃদয়ের মাঝে ভাংচুর।
চুর্ণবিচুর্ণ দেহ কাছে আসার আশে,
বেঁচে থাকা এক যৌবন সময় স্মৃতি নিয়ে।
প্রেম ভালোবাসার আগের ধাপ, ভালোবাসার পর ই শরীর।





দেবালয়




ভালোবাসার দেবালয়ে ধ্বংস যজ্ঞ চালিয়ে
ইন্দ্রের চরিত্র বিলাসী দেবতা হয়ে ওঠার গল্প।
যদি হৃদয়ের রক্ত ক্ষননের লাল রঙ প্রেম হয়,
তবে হোক না তাতে ক্ষতি!
প্রেমিকার যোনি ধর্ষণ-
করে ঈশ্বর ধরষণে যে সুখ,
তা আত্মহত্যার মতোই সুন্দর ও আনন্দের।




ইসমিতা



কবি হয়ে
লেখালেখি করি,
ভালোবাসা ও প্রেম বুঝি।
গোরস্তানে গোলাপ বুনতেও পারি,
মৃত্যুর বুকে হাসি আঁকি।
আমি শিল্পী-
কাগজ আর কালি যেমন শিল্পী,
মনের শিল্পীও আমি।
যদি কখনও প্রয়োজন হয় খবর দিও; ডাকপিয়ন ভ্রমরের কানে-কানে।
বাঁশ পাতার ভেলায় ভেসে চলে আসবো,
তোমার মনের সকল প্রয়োজন বাঁশির সুরে মিটাতে কোন এক শীতে।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন