পার্থ মল্লিক এর কবিতা | মিহিন্দা




দেয়াল



ঘাসের নিচে যখন ঘুমিয়ে থাকবো আমি
কুয়াশা নামবে খুব ভোরে,
শিশির চুইয়ে-চুইয়ে পড়বে ফুলের বোঁটা থেকে;
আমার কবরের চারপাশে কোনো দেয়াল তুলো না যেন।
ফাগুন এলে কোকিলের সুর যেন শুনি,
দখিনা বাতাস যেন আমার গায়েও লাগে,
আমার কবরের চারপাশে কোনো দেয়াল তুলো না যেন।
তাঁরকাটার বেড়ারও কোনো প্রয়োজন নেই-
দূরের বাগান থেকে ফুলের লতাগুলো
আমার কবরের পাশে এসে দাঁড়াবে,
বারো মাস নতুন ফুল ফুটবে, আমার কবর হবে ফুলের বাগান
এখানে প্রজাপতিরা আসবে, ঝিঁঝিরা গাইবে
আমার কবর হবে পৃথিবীর পাখিদের অভয়ারণ্য;
এখানে ভ্রমরের গুঞ্জনে সন্ধ্যা নামবে,
আমার কবরের চারপাশে কোনো দেয়াল তুলো না যেন।






তোমার বাড়ির পাশে



তোমার বাড়ির পাশে ঋতুবতী মেঘ,
মাটির খাঁচায় রাখো নীল রঙা পাখি-
হয়তো জানো না তুমি,
একটুও আলোতে ঘুমাতে পারে না যে
তার বুকের ওপরে জন্মাবে চারাগাছ।
আমি যেদিন থেকে শ্রাবণী পূর্ণিমা দেখি
আর শুনি পাতাদের ঝিরিঝিরি গান,
সেদিন থেকেই পাখি হওয়ার ইচ্ছে খুব
ইচ্ছে হয়, তোমার খাঁচার পাখি হয়ে মরি।
.
তোমার বাড়ির পাশে না লেখা চিঠি,
ঠিকানা কবেই ভুলেছো তুমি-
তোমায় দেখবো বলে,
রোজই জানালা ভাঙি, বৃষ্টি কুড়াই
আমার ঠিকানা তোমাদের কলপাড়ে।
যদিও ছিঁড়ে নেবে লোকে, নিয়ে যাক
তোমার বাড়ির পাশে
আমি কদম গাছ হয়েই জন্মাবো।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন