সায়ন্তনী হোড় - এর কবিতা | মিহিন্দা




 বিষাদগুহা


অবসাদ গুলতে গুলতে গ্লাসের কোণায়
রক্ত জমাট বাঁধছে
ক্রমশ ক্ষত এগিয়ে আসছে
আর শ্বাসরোধের আকাশ খুলে যাচ্ছে

সিলিং
          অব্যক্ত কথোপকথন
                                   বৃষ্টির জ্যামিতিক নকশা                                     

ঘুম শুকিয়ে গেলে জেগে ওঠে
হত্যানীতির সমীকরণ
যেখানে ঘুমের ওষুধের গায়ে জড়িয়ে থাকে নীতিকথা
   পরবর্তী
     দৃ
     শ্য
অন্ধকার শিস দিতে দিতে
আলোর যন্ত্রণাগুচ্ছ পেরিয়ে যাচ্ছে


জলীয়হত্যার জবানবন্দি
          
মেঘ বিক্রি হলে
বর্ষার কোমরে কাঁটা জড়িয়ে যায়
সহনশীলতা উপড়ে ফেলায়
বুক থেকে সরে যাচ্ছে হত্যালীলার স্বপ্ন

     ক্ষতগুলো ফুটে উঠেছে

            আত্মসমর্পনের  ছক
  ক্রমশ শীর্ণ হয়ে আসছে বক

স্বপ্নরা দড়ির দুদিকে আলোককণা রেখে
ঝাঁপিয়ে পড়ে অন্তিম ফুলযাত্রার দিকে

মুহূর্ত মনে পড়ার তীব্র সময়গুলোকে
কখনোই একেবারে মৃত্যুর দিকে ঠেলে
দেওয়া যায়না
তবুও এই রঙিন ব্রহ্মাণ্ডে ক্ষণস্থায়ী মাছেদের জলের নীচে বুদবুদের আত্মা কে প্রতিনিয়ত হত্যা হতে দেখতে হয়

                                     

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন